,

হোয়াটসঅ্যাপের কিছু নতুন সুবিধা যা হয়তো আপনার জানা নেই

whatsapp-হোয়াটসঅ্যাপের

বহুল ব্যবহৃত মেসেজিং অ্যাপলিকেশনগুলোর মধ্যে হোয়াটসঅ্যাপ অন্যতম একটি অ্যাপলিকেশন। স্মার্টফোন ব্যবহার করছে অথচ হোয়াটসঅ্যাপ নেই, এমনটি হয়তো খুঁজে পাওয়া কষ্টকর। যাই হোক, জনপ্রিয় এই অ্যাপলিকেশনে সম্প্রতি যুক্ত করা হয়েছে নতুন কিছু ফিচার যা হয়তো আপনার এখনও জানা নেই, আর এজন্যেই আজকের এই টিউটোরিয়ালটি লিখতে বসা। চলুন তাহলে, জেনে নেই নতুন যুক্ত করা সুবিধাগুলো এবং সেগুলো কীভাবে ব্যবহার করতে হবে সে সম্পর্কে।

‘Star’ মেসেজের সুবিধা 

1

ধরুন আপনাকে WhatsApp-এ কেউ একটি গুরুত্বপূর্ণ বার্তা পাঠালো যা আপনার পরে দরকার হতে পারে তখন আপনি কী করবেন? কেননা প্রয়োজনের সময় খুব দ্রুত প্রচেষ্টায় সেই মেসেজটি আপনি খুঁজে নাও পেতে পারেন। এজন্য হোয়াটসঅ্যাপে রয়েছে স্টার মেসেজ সুবিধা। এর ফলে আপনার কোন প্রয়োজনীয় বার্তার উপর আপনি লং প্রেস করে ট্যাপ করলে কিছু অপশন দেখতে পাবেন যেখান থেকে আপনি সেই মেসেজটিকে স্টার মেসেজের ক্যাটাগরিতে ফেলতে পারবেন এবং পরবর্তিতে যখন আপনার সেই মেসেজটি দরকার হবে বা সকল স্টার মেসেজ দেখার দরকার হবে তখন Menu থেকে Starred Messages অপশনটি সিলেক্ট করলেই আপনি সকল স্টার মেসেজের লিস্ট দেখতে পাবেন।

স্টার্ড মেসেজগুলো অবশ্য আপনি সার্চ করেও খুঁজে বের করতে পারবেন, এতে আপনার যদি কিছু তথ্য মনে থেকে থাকে তবে আপনি খুব দ্রুত আপনার প্রয়োজনীয় বার্তাটি খুঁজে পাবেন। আর হ্যাঁ, স্টার করে রাখা মেসেজগুলোকে আপনি যখন তখন আন-স্টার করতে পারবেন।

গুগল ড্রাইভে কনভার্সেশন ব্যাকআপ সুবিধা

2

ধরুন আপনি বেশ কিছুটা সময় ধরে আপনার হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাাকাউন্টটি ব্যবহার করছেন। এখন কোন কারণে আপনার সেই স্মার্টফোনটি আপনার কাছে নেই, হয়তো নতুন ফোন কিনেছেন বা আপনার সেই ফোনটি চুরি হয়ে গিয়েছে। তখন আপনি সেই পুরাতন চ্যাট হিস্টোরিগুলো যেন আগের মতই পেতে পারেন সেজন্য হোয়াটসঅ্যাপে যুক্ত করা হয়েছে গুগল ড্রাইভ ব্যাকআপ সুবিধা। এই সুবিধা ব্যবহারের মাধ্যমে আপনার কনভার্সেশনগুলো স্বয়ংক্রিয়ভাবেই ব্যাকআপ হয়ে যাবে এবং আপনি এরপর যখন ইচ্ছে তখন সেই কনভার্সেশনগুলো রিস্টোর করে নিতে পারবেন।

এই সুবিধাটি ব্যবহার করার জন্য আপনাকে অবশ্যই হোয়াটসঅ্যাপের নতুন ভার্সন ব্যবহার করতে হবে। সুবিধাটি ইনাবল করতে হলে আপনাকে যেতে হবে Menu > Settings > Chats and Calls > Chat Backup > Google Drive Settings অপশনে এবং আপনার পছন্দ মত সুবিধায় সেটআপ করে নিলেই হবে।

সহজ উপায়ে চ্যাট হিস্টোরি মুছে ফেলা 

3

যেহেতু আপনি আপনার কনভার্সেশন ব্যাকআপ করেই রাখছেন তাই সেই পুরাতন চ্যাটগুলোকে প্রয়োজন ছাড়াই মোবাইলে রেখে দেয়ার কোন মানেই হয় না। তাই আপনি নিশ্চয়ই চ্যাট হিস্টোরিগুলোকে মুছে ফেলেন, আর এই প্রসেসটিকেই সহজ করে দেয়ার সুবিধা যোগ করেছে হোয়াটসঅ্যাপ।



আপনি যদি Menu > Settings > Chats and Calls > Chat History > Clear All Chats যান তবে আপনাকে কিছু অপশন দেয়া হবে যে আপনি ঠিক কিরকম ভাবে আপনার চ্যাট হিস্টোরিগুলো মুছে ফেলতে চান। আপনি চাইলে একসাথে সবগুলো মেসেজ মুছে ফেলতে পারেন, অথবা শেষ ৩০ দিনের মেসেজ মুছে ফেলতে পারেন অথবা চাইলে ৬ মাসের মেসেজও মুছে ফেলতে পারেন।

এছাড়াও আপনি কোন নির্দিষ্টি চ্যাটের ক্ষেত্রেও ঠিক একইভাবে চ্যাট হিস্টোরি মুছে ফেলতে পারেন, এর জন্য সেই নির্দিষ্টি চ্যাটে ঢুকে Menu > More > Clear Chat অপশনটি সিলেক্ট করলেই হবে এবং এক্ষেত্রেও আপনি সেই একই রকম অপশনগুলো দেখতে পাবেন।

রিড বা আনরিড মার্ক করার সুবিধা

4

ইমেইলে এই বিষয়টি নিশ্চয়ই লক্ষ্য করেছেন যে আপনি চাইলে একটি ইমেইলকে না পড়েই রিড বা পড়ার পরেও আনরিড মেসেজের তালিকায় ফেলতে পারেন। ভাবছেন কেন আনরিড করবে? ধরুন, আপনার কাছে এমন একটি বার্তা এল যা আপনি সময়ের অভাবে তখন দেখতে পারলেন না কিন্তু ঠিকই খুলেছিলেন, তখন আপনি যেন বার্তাটি পরবর্তিতে খুঁজে পান সহজেই সেজন্য সেটিকে আনরিড মার্ক করে রাখতে পারেন। আর এই একই কারণে হোয়াটসঅ্যাপেও এই সুবিধাটি যুক্ত করা হয়েছে।

কোন একটি নির্দিষ্টি চ্যাটের উপর ট্যাপ করে হোল্ড করে রাখলেই আপনি একটি কনটেক্সট মেন্যু দেখতে পাবেন যার মধ্যে এই সুবিধাটি আপনি পাবেন।

কাস্টম নোটিফিকেশন সুবিধা

5

এই ফিচারটি অনেকেই জেনে থাকবেন হয়ত। আপনি ইচ্ছে করলেই কোন একজন ব্যক্তি বা গ্রুপের নোটিফিকেশনের ক্ষেত্রে কিছু কাস্টম রিংগটোন এবং এ সঙ্ক্রান্ত কিছু সেটিংস ব্যবহার করতে পারবেন যেন নোটিফিকেশনের মাধ্যমেই আপনি বুঝে নিতে পারেন কে আপনাকে বার্তা পাঠিয়েছে। আর খুব ব্যস্ততার মাঝে প্রয়োজনীয় ব্যক্তি এবং অপ্রয়োজনীয় ব্যক্তিদের ফিল্টার করতে এই সুবিধাটি বেশ সাহায্য করে থাকে।

পোস্টটি ফেসবুক এ শেয়ার করে অন্যদের জানার সুযোগ দিন। আপনার প্রয়োজনীয় সব গুরুত্বপূর্ণ পোস্ট পেতে প্রয়োজন২৪.কম পেইজ এ লাইক দিয়ে অ্যাক্টিভ থাকুন।

Share Button