,

‘সাব্বিরে’ নতুন স্বপ্ন দেখছে বাংলাদেশ

231737-সাব্বিরে

টসে জয়, আগে ব্যাটিং নেওয়া; এতোদূর পর্যন্ত ঠিকঠাক ছিলো। কিন্তু দুই রানের মাথায় দুই ওপেনারকে হারিয়ে বেশ বিপাকে পড়ে স্বাগতিক বাংলাদেশ। এরপরই আলোকবর্তিকা হয়ে আসেন সাব্বির রহমান। ঝড়ো হাফসেঞ্চুরি দিয়ে এগিয়ে নেন দলকে।

এশিয়া কাপে নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে শ্রীলংকার বিপক্ষে ব্যাট করতে নেমেই অধিনায়ক এঞ্জেলো ম্যাথুস আর নুয়ান কুলাসেকারার বলে রানের খাতা বন্ধ রেখেই আউট হন মোহাম্মদ মিথুন ও সৌম্য সরকার। এরপরই মুশফিকুর রহিমকে নিয়ে দলের হাল ধরার চেষ্টা করেন বাংলাদেশের একমাত্র টি-টোয়েন্টি স্পেশালিস্ট সাব্বির। কিন্তু চার রানও তুলতেই রান আউটের কবলে পড়ে ফিরে যান মুশফিক।

ওদিকে তখন একাই ঝড় তুলে যাচ্ছেন সাব্বির। পরের উইকেটে সাকিব আল হাসান আসলে একপ্রান্ত ব্লক করতে থাকেন, জায়গা করে দেন সাব্বিরকে। সুযোগটা কাজে লাগান তরুণ এই ব্যাটসম্যান,  অন্যপ্রান্তে একের পর এক বাউন্ডারি আর ছক্কা হাঁকাতে থাকেন। প্রথম ২১ বলে তুলেছিলেন ৩৭ রান।

সপ্তম, অস্টম ওভারে তিলকারত্নে দিলশান আর রঙ্গনা হেরাথের বলে খানিকটা খেয় হারান সাব্বির। পরে সেহান জয়সুরিয়ার ওভারে যেন শোধ তুলে নেন। টানা তিন বলে একটি ছয় আর দুইটি বাউন্ডারি দিয়ে পার করেন হাফসেঞ্চুরি। এতে তার খরচ হয় ৩৮ বল। হাফসেঞ্চুরিতে ছিলো দুইটি ছয় আর ছয়টি বাউন্ডারি। ৫০-এর মাইলফলক পার করার পর যেন আরো বেশি ক্ষ্যাপাটে হয়ে ওঠেন সাব্বির।

লঙ্কান বোলারদেরকে যেন পাড়ার বোলার ভেবেই বাউন্ডারি হাঁকাচ্ছিলেন। শেষপর্যন্ত আউট হয়েছেন ৮০ রানে। পরের ৩০ রান করতে ১৬ বল খরচ করেছেন তিনি। ১৫তম ওভারের শেষ বলে দুশমন্ত চামিরার বলে বাউন্ডারিতেই জয়সুরিয়ার কাছে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন।



ঝড়ো এই ইনিংসের মধ্যে দিয়ে টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশের পক্ষে সাব্বির চতুর্থ সর্বোচ্চ রানের মালিক হওয়ার গৌরব অর্জন করলেন।  এই তালিকায় সবার উপরে রয়েছেন তামিম ইকবাল (৮৮)। চলতি এশিয়া কাপে সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিপক্ষে ছয় রানে আউট হলেও নিজেদের প্রথম ম্যাচেই ভারতের বিপক্ষে ঝড় তুলেছিলেন সাব্বির। মহেন্দ্র সিং ধোনিদের বিপক্ষে হারের দিন ৩২ বলে ৪৪ রানের ইনিংস খেলেন তিনি।

পোস্টটি ফেসবুক এ শেয়ার করে অন্যদের জানার সুযোগ দিন। আপনার প্রয়োজনীয় সব গুরুত্বপূর্ণ পোস্ট পেতে প্রয়োজন২৪.কম পেইজ এ লাইক দিয়ে অ্যাক্টিভ থাকুন।

Share Button