,

পর্ণ সাইটের নিষেধাজ্ঞা নিয়ে বললেন সানি ও তার স্বামী

sunny

অবশেষে মুখ খুললেন তিনি। পর্নোগ্রাফিক ওয়েবসাইটের উপর নিষেধাজ্ঞার জারি হওয়ার পর তাঁর প্রতিক্রিয়ার অপেক্ষায় ছিলেন সকলেই। তিনি সানি লিওন। পর্ন ছবির প্রথম সারির নাম। এক সময় পর্ন ছবিতে সফল কেরিয়ার গড়েছিলেন তিনি। তাঁর শরীরী হিল্লোলে মজেছেন অনেকেই। এখনও পর্ন সাইটে সানি লিওন ‘মোস্ট সার্চেবেল কিওয়ার্ড’। কেরিয়ারের শীর্ষে থাকতে থাকতেই সব ছেড়ে দিয়ে মুম্বইতে পাড়ি জমান এই ইন্দো-কানাডিয়ান পর্ন-স্টার। এখন বলিউডে অভিনয়ই তাঁর মূল লক্ষ্য। পর্নোগ্রাফিক ওয়েবসাইটের উপর সরকারি নিষেধাজ্ঞা কতটা যুক্তিযুক্ত তা তিনি ভালই বলতে পারবেন। কিন্তু এত দিন মুখে কুলুপ এঁটেছিলেন তিনি। শেষ পর্যন্ত নীরবতা ভাঙল তাঁর।

তবে কোনও মৌখিক বার্তা নয়। শুধু টুইটারে একটা ছবি পোস্ট করেছেন নায়িকা। যে ছবিই নির্বাক সানির হয়ে বলে দিচ্ছে অনেক কথা। ছবিতে দেখা যাচ্ছে, স্বামী ড্যানিয়েল ওয়েবারকে পাশে নিয়ে হাসিমুখে দাঁড়িয়ে রয়েছেন সানি। ড্যানিয়েলের কালো গেঞ্জিতে সোনালী দিয়ে লেখা রয়েছে ‘সেক্স সেলস’। অর্থাত্ সেক্স বিক্রি হয়। প্রতিটি অক্ষর বড় হরফে লেখা। আর ছবির নীচে কায়দা করে দু’টো স্মাইলিও দিয়েছেন এই প্রাক্তন পর্ন তারকা। এই বার্তা থেকেই যা বোঝার বুঝে নিতে হবে সকলকে।



পর্নোগ্রাফিক ওয়েবসাইটের উপর নিষেধাজ্ঞা নিয়ে দেশজোড়া বিতর্কের মধ্যে সানি লিওনের মতামত জানতে আগ্রহী ছিলেন সকলেই। পর্ন কেরিয়ার ছেড়ে দিয়ে মেনস্ট্রিম ছবিতে নাম লিখিয়েছেন বলেই কি নিশ্চুপ ছিলেন তিনি? হয়তো মন্তব্য করে আর বিতর্ক বাড়াতে চাননি সানি। শুধু ছবি পোস্ট করেই নিজের বার্তা দিয়েছেন। তবে পর্ন দুনিয়ার একাংশের মতে, এই সঙ্কটের সময়ে প্রাক্তনী হিসাবে এগিয়ে এলেন না সানি। শুধু ছবি পোস্ট করেই থেমে থাকলেন। তাঁর আরও সপ্রতিভ প্রতিক্রিয়া দেওয়া উচিত ছিল বলেই মনে করছেন পর্ন দুনিয়ার একাংশ।

খবরটি ফেসবুক এ শেয়ার করে অন্যদের জানার সুযোগ দিন। আপনার প্রয়োজনীয় সব গুরুত্বপূর্ণ পোস্ট পেতে প্রয়োজন২৪.কম পেইজ এ লাইক দিয়ে অ্যাক্টিভ থাকুন।

Share Button