,

“অতিথির গাড়ী বাইরে রাখুন”

Gatwick_Moat_House_multi_storey_car_park

::ছাইফুল হুদা সিদ্দিকী::

“অতিথির গাড়ী বাইরে রাখুন”।
সত্তর আশির দশকেও নজর কেড়েছে চট্রগ্রাম শহরে দশ, পনের গণ্ডা কিংবা পুরো বিশ গণ্ডা কিংবা এক- দেড় বিঘা জমির উপর অভিজাত স্বচ্ছল একক পরিবারের বাড়ী।শুধু চট্রগ্রামে নয় এমন একটা সময় ছিলো যখন বাংলাদেশের প্রতিটি বড় বড় শহরের অভিজাত পরিবারের বাড়ী গুলো একতালা, দোতলা কিংবা তিনতালা অনেকটা জায়গাজুড়ে তৈরী করা হতো। এমনকি ছোট ছোট বাড়ীগুলোও আশেপাশে জায়গাছেড়ে গাড়ী পার্কিং সুবিধা রেখে তৈরী করা হতো।




ঐ বিশাল বাড়ীগুলোতে এখনকার মতোন জৌলুস বা ভিতরে বাইরে টাইলস পাথরের চাকচিক্য ছিলনা বটে, তবে সবুজেমাখা গাছগাছালি ভরা পুকুরে সানবাধাঁনো ঘাট আর বাড়ীর সামনে ও আশেপাশে বিশাল খালি জায়গা সব মিলিয়ে বাড়ী গুলো বসবাসের জন্য অনেক মনোরম ও আরামপ্রদ ছিলো। গত কয়েকবৎসরে শহরগুলোতে সেই বিশাল আরামপ্রদ বাড়ী গুলো ভেঙ্গে ভেঙ্গে আবাসন ব্যবসায়ীদের সহ-যোগীতায় তৈরী হচ্ছে চাকচিক্যময় আধুনিক সুবিধা সম্বিলিত দশ, পনের কিংবা বিশ তালা সু উচ্চ অট্রালিকা।যেখানে নিরাপত্তা ব্যবস্থায় বড় গেইট ও নিরাপত্তারক্ষী রয়েছে, থাকছে নামাজের জায়গা, সুইমিংপুল, ব্যয়ামাগার ও কমিউনিটিহল সহ নানা ধরনের সুযোগ সুবিধা।তবে গাড়ী পার্কিং এর বেলায় প্রতি ফ্লাটে একটা গাড়ীর জন্য পার্কিং এর জায়গা রাখা হচ্ছে।বাইরের একটি গাড়ী আসলেও ফ্লাটে রাখার পার্কিং সুবিধা নেই। নিরাপত্তা রক্ষীদের কখনো আবদার মাখানো অনুরোধ আবার কখনো কড়া নির্দেশ আপনার গাড়ী বাইরে রাখুন। আমরা মানুষ সামাজিক জীব। সামাজিকতা রক্ষার জন্য একে অপরের বাড়িতে বেড়াতে যাবে। এক পরিবার অন্য পরিবারকে দাওয়াত দেবে আসা যাওয়া হবে এইতো নিয়ম, এভাবেই আমাদের সামাজিকতা রক্ষা হচ্ছে ।





কিন্ত এখনকার চাকচিক্যময় যেই অট্রলিকাগুলোতে যেখানে আপনি থাকছেন আর আপনার আত্বীয়-স্বজন, বন্ধু- বান্ধব আর মেহমান আসবে সেই অট্রলিকার গেইটের বাইরে বড় বড় লেখা সাইনবোর্ড “অতিথির গাড়ী বাইরে রাখুন”। এ কেমন অতিথির সেবা ? গাড়ীতে ড্রাইভার থাকলে হয়তো তিনি গাড়ী আশে পাশে রাস্তায় কিংবা অন্য কোন পার্কিং এলাকায় গাড়ী নিয়ে যেতে পারবেন কিন্ত আপনি নিজে যখন গাড়ী চালিয়ে এমন ধরনের পরিস্থিতে সন্মুখীন হন কেমন অনুভূতি হয় ?

ছাইফুল হুদা সিদ্দিকী

ছাইফুল হুদা সিদ্দিকী

‘ফেসবুক কর্ণার এ প্রকাশিত লেখা প্রয়োজন২৪ এর নিজস্ব প্রতিবেদন নয়, ফেসবুক ব্যাবহার কারীদের মতামত।’

Share Button